PUBG আজকের দিনে দাঁড়িয়ে পৃথিবীর টপ গেমগুলির মধ্যে অন‍্যতম একটি। একটি গেমটি সম্পর্কে জানে না এমন লোক আজ প্রায় নেই বললেই চলে। খেলোয়াড়দের সংখ্যা তো প্রচুর, সেটা না হয় নাই বা বললাম। PUBG Mobile এর জনপ্রিয়তা সম্পর্কে ধারণা করার জন্য এই একটি তথ‍্য‌ই যথেষ্ট যে গেমটি বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি টাকা কামানো গেমে পরিণত হয়েছে। চীন ছাড়া বিশ্বের প্রায় সব দেশেই গেমটির প্রতিদিন গড়ে 5 কোটি ইউজার আছে। কিছু দিন আগে এই গেমটি নেপালে ব‍্যানড করা হয়েছিল। সবচেয়ে বড়ো কথা PUBG Mobile সম্পর্কে একটি নতুন খবর পাওয়া গেছে। জানা গেছে এই গেমটিকে “হারাম” আখ্যা দিয়ে একটি মুসলিম গ্ৰুপ “ফতোয়া” জারি করেছে।

PUBG Mobile সম্পর্কে এই অবাক করা খবর ইন্দোনেশিয়া থেকে পাওয়া গেছে। ইন্দোনেশিয়ার মুসলিম উলেমা পরিষদ (MPU) এই গেমের বিরুদ্ধে ফতোয়া জারি করেছে। এই ঘটনা গত সপ্তাহে ঘটে যখন ইন্দোনেশিয়ার আসেহ প্রদেশে গেমটিকে হারাম মনে করে সম্প্রদায়ের একটি বড়ো অংশ PUBG খেলাকে ইসলামের জন্য ঘৃণ্য বলে দাবি করেছে। আরও বলা হয় এই গেমের ফলে মানুষের হিংসাত্মক মনোভাব বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ফতোয়া জারি করার পর এবার এমপিইউ স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে বোঝাপড়ায় আসতে চাইছে যাতে গেমটি আইনি ভাবেও ব‍্যানড করা সম্ভব হয়। ভারতীয় পাঠকরা জেনে রাখুন “আইনি” মানে লোকতন্ত্র দ্বারা গঠিত সুসংবদ্ধ ও সুগঠিত আইনব‍্যবস্থা নয়, বরং উলেমার মূল অভিসন্ধি PUBG গেমকে মুসলিম শাসকদের দ্বারা তৈরি আইন ও নিয়মাবলী (শরিয়া) এর মাধ্যমে ব‍্যানড করা। এরপর যদি ইন্দোনেশিয়াতে আইনি ভাবে PUBG কে হারাম ঘোষণা করা হয় তবে কেউ গেমটি খেললে তাকে অপরাধী বলে গণ্য করা হবে।

খানেই শেষ নয়। হারাম ঘোষণা করার পরে গেম খেলার দরুন যাদের অপরাধী বলে মানা হবে তাদের শাস্তিও দেওয়া হবে এবং শাস্তি হিসেবে Publ Caning অর্থাৎ কোনো জনবহুল স্থানে হাত বেঁধে পেটানো হতে পারে। উলেমা পরিষদ PUBG Mobile এর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে এই গেমটি বাচ্চা ও বড়ো সবার মধ‍্যেই যথেষ্ট জনপ্রিয় হ‌ওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অত‍্যন্ত নেতিবাচক‌ও বটে। এর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হিংসাত্মক মনোভাব বৃদ্ধি। নতুন আপডেট অনুযায়ী Oman এর Assistant Grand Mufti শেখ কাহলান আল খারুসিও PUBG ব‍্যানড করার সপক্ষে তাঁর মতামত জানিয়েছেন।


নেপালে ব‍্যানড PUBG

নেপাল টেলিকমিউনিকেশন অথরিটি (NTA) তাদের দেশে PUBG ব‍্যানড করার আদেশ দিয়েছিল। এনটিএর ডেপুটি ডাইরেক্টর Himalayan Nation’s Federal Investigation Authority এর হস্তক্ষেপের পর নেপালের সমস্ত মোবাইল অপারেটর ও নেটওয়ার্ক সার্ভিস প্রোভাইবারদের আদেশ দেয় যাতে তাদের নেটওয়ার্কে PUBG গেমের স্ট্রিমিং ব্লক করে দেওয়া হয়। অর্থাৎ ফোনে PUBG থাকা সত্ত্বেও নেপালের জনগণ মোবাইল ডেটা বা ওয়াইফাইয়ের সাহায্যে গেম খেলতে পারবেন না।

ব‍্যানড হয়েছে গুজরাটেও

জানিয়ে রাখি ভারতের একাধিক রাজ‍্যে PUBG ব‍্যানড করার প্রস্তাব আনা হয়। গত 30 মার্চ গুজরাটে PUBG ব‍্যানড করে দেওয়া হয় এবং এরপর এই গেমটি খেলার অভিযোগে 10 জনকে গ্ৰেফতার‌ও করা হয়। যুবকদের গ্ৰেফতারির এই ঘটনায় যথেষ্ট উত্তেজনা ছড়ায়। এরপরই ভারতে PUBG Mobile এর মালিক কোম্পানি Tencent India তাদের খেলোয়াড়দের সপক্ষে আসে এবং ব‍্যানড তুলে নেওয়ার দাবি করে।

প্রসঙ্গত কিছু দিন আগে দিল্লিতে আয়োজিত PUBG Mobile Club Open (PMCO) প্রতিযোগিতায় গোটা দেশের PUBG Mobile প্লেয়ার অংশগ্রহণ করে এবং বিজয়ী দল প্রায় 42 লক্ষ টাকার পুরস্কার পায়।

আরো দেখুন
মন্তব্য

Register

OR

Do you already have an account? Login

Login

OR

Don't you have an account yet? Register

Newsletter

Submit to our newsletter to receive exclusive stories delivered to you inbox!

keyboard_arrow_up