জেনে নিন,  আপনার ফোন হ্যাক করা হয়েছে বুঝবেন যে ১৫টি লক্ষণ দেখা দিলে

জেনে নিন, আপনার ফোন হ্যাক করা হয়েছে বুঝবেন যে ১৫টি লক্ষণ দেখা দিলে

আমরা আমাদের স্মার্ট ফোনকে আমাদের সবচেয়ে নিরাপদ সঙ্গি মনে করি আর তাই এতে আমরা আমাদের বিভিন্ন জরুরি তথ্য যেমন ছবি থেকে শুরু করে ক্রেডিট কার্ড এর তথ্য পর্যন্ত রেখে থাকি।অনেকে আবার নিজের বিভিন্ন জায়গার ইউজারনেম আর পাসওয়ার্ড নোটে সংরক্ষণ করে রাখি।আমরা আমাদের বিভিন্ন ই-মেইল এই ফোন দিয়ে পাঠিয়ে বা গ্রহণ করে থাকি যার মধ্যে শুধু কর্মক্ষেত্রই না সাথে আরও বিভিন্ন ধরণের গোপন ই-মেইল ও থাকে যা প্রতিনিয়ত আপনার সকল ডিভাইস হতে ইম্পোর্ট করা হচ্ছে।যদি আপনি ভাবেন যে এই স্মার্ট ফোন আপনার প্রাইভেট জোন আর এখানে আপনি ছাড়া আর কেউ ঢুকতে পারবে না তাহলে এটি আপনার এক বিরাট ভুল ধারণা।এতদিন পর্যন্ত এমন কোন ডিভাইস নেই যাকে হ্যাক করা যাবে না।তাই আপনার স্মার্ট ফোনের হ্যাকিং এর শিকার হওয়ার ঝুঁকি কমাতে জেনে নিন কিছু পরিষ্কার লক্ষণ যা দেখলেই বুঝবেন যে আপনার ফোন হ্যাক করা হয়েছে।চলুন শুরু করা যাক।

আপনি আপনার ফোনে নতুন নতুন অ্যাপ্লিকেশান দেখছেন কিন্তু সেগুলো আপনি ইন্সটল করেননি।সাধারণত যখন আপনি সিস্টেমের সফটওয়্যার বা সার্ভিস প্রোভাইডার আপডেট করেন তখন তারা বেশ কিছু অ্যাপ্লিকেশান ইন্সটল করতে পারে তবে সেগুলো আপনার ভাল পারফর্মেন্সের জন্য।তবে এগুলো দেখলে এড়িয়ে যাবেন না।আপনি ইন্টারনেটে অনুসন্ধান করে দেখতে পারেন সেই অ্যাপ্লিকেশানটি কিসের, সেটি কি নির্ভরযোগ্য আর সেই অ্যাপ্লিকেশানের অন্যান্য ব্যবহারকারীরা এটা নিয়ে কী বলে?যদি এটা আপনার ফোনের নির্মাতা বা আপনি কেউই ইন্সটল করে না থাকেন তাহলে এটা হয়ত হ্যাকাররা করেছে।
কিছু অ্যাপ্লিকেশান একটু বিচিত্রভাবে কাজ করছে।মানে আপনার কিছু অ্যাপ্লিকেশান আগে যেমন কাজ করত এখন সেরকম কাজ করছে না।এটার কারণ হতে পারে ম্যালওয়্যার যা হ্যাকাররা স্মার্ট ফোন কিংবা অন্য যেকোন ডিভাইস হ্যাক করতে পাঠিয়ে থাকে।
আপনার ফোন বেশ দ্রুতই ব্যাটারির চার্য ফুড়িয়ে গিয়ে বন্ধ হয়ে যাবে।এর কারণ হতে পারে কিছু অজানা অ্যাপ্লিকেশান যাকে হয়ত আপনার চোখে পরে নি কিন্তু সেটি আপনার ফোনে সারাক্ষণ চলতে থাকে।এই অ্যাপ্লিকেশান হয়ত একজন হ্যাকার আপনার ফোন হ্যাক করে এখানে পাঠিয়েছে যার ফলে সে সবসময় আপনার উপর নজর রাখতে পারে।
আপনার স্মার্ট ফোনের গতি আগের চাইতে বেশ খানিকটা কমে যাবে।এর আরণ হতে পারে হ্যাকারের পাঠানো ম্যালওয়্যার।এই ম্যালওয়্যার হয়ত আপনার তথ্য সবসময় হ্যাকারের কাছে পাঠাচ্ছে যার কারণে এটি আপনার ফোনের র‍্যামের বেশ খানিকটা র‍্যাম দখল করে থাকবে।আর র‍্যামে কম জায়গা থাকলে অবশ্যই আপনার সিস্টেম আগের চাইতে বেশ ধীর গতিতে কাজ করবে।
আপনার ফোন বেশ দ্রুতই গরম হয়ে উঠবে।যদি আপনার ফোন হ্যাক করা হয় তাহলে এমন হতে পারে যে আপনি আপনার ফোন দিয়ে কোন ফোন কল পররযন্ত করেননি কিন্তু তাও আপনি ফোনের উত্তাপ স্ক্রিনেই পেয়ে যাচ্ছেন।তারমানে কোন একটি অজানা অ্যাপ্লিকেশান আপনার সিস্টেমের ব্যাকগ্রাউন্ডে চলছে আর এটি ফোনকে এতই চাপের মধ্যে রেখেছে যে আপনার ফোন গরম হয়ে যাচ্ছে।
আপনার ফোন নিজে থেকেই রিবুট হবে বা কল করবে অথবা কোন অ্যাপ্লিকেশান চালু করবে।আপনি হয়ত কোন ভুতের সিনেমায় এমনতা দেখে থাকতে পারেন তবে এমনটি হওয়ার বাস্তব কারণ হলো হ্যাকারের পাঠানো ম্যালওয়্যার।হ্যাকার সেই ম্যালওয়্যার দিয়ে আপনার ফোনের উপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রন নিতে পারবে।
কিছু অজানা ফোন নাম্বার আপনার রিসেন্ট কল লিস্টে থাকবে যা আপনি করেননি তবুও আপনাকে তার খরচ দিতে হবে।হ্যাকাররা অনেক সময় আপনার ফোনকে প্রক্সি হিসেবে ব্যবহার করে বেশি মূল্যবান ফোন কল যেমন বিদেশে কল করতে পারে যার খরচ আপনাকেই দিতে হবে।
আপনার ফোন অজানা টেক্সট মেসেজ পাঠাবে আর গ্রহণ করবে।কল করার মতই অজানা নাম্বার থেকে মেসেজ করেও আপনার কাছের মানুষদের কাছে মোটা অংকের টাকা চাইতে পারে।যদি এমন হয় তাহলে আপনার কাছের সবাইকে জানিয়ে দিন যে এমন কিছু হলে যেন সামনা সামনি আপনার সাথে এই ব্যাপারে কথা বলে।
আপনি আপনার ফোনকে বন্ধ করতে পারবেন না।আপনি যদি আপনার ফোনকে বন্ধ করতে যান তাহলে এটি বন্ধ হবে না।তার উপর নিজে থেকেই বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশান চালু করবে।
আপনার ফোন কলের সময় কিছু নয়েজ শুনতে পাবেন যা এই জায়গা থেকে র আগে শোনা যায়নি।যদি এমন হয় তাহলে ধরে নিতে হবে যে আপনার ফোনে অন্য কারও এক্সসেস আছে আর তারা আপনার কথা শুনছে।
বিভিন্ন ওয়েবসাইট অন্যরকমভাবে দেখাবে।বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশানের মতই ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রেও ম্যালওয়্যার আপনার এইরকম অভিজ্ঞতার কারণ হতে পারে। অর্থাৎ আপনার ফোন হ্যাক করা হয়েছে।
আপনার মোবাইল ডাটার অতিরিক্ত ব্যবহার।আপনি হয়ত মোবাইল ডাটা ব্যবহার করছেন না কিন্তু তাও আপনার মোবাইল ডাটা প্রচুর পরিমাণে ব্যবহার হচ্ছে।এর কারণ হতে পারে কিছু অজানা অ্যাপ্লিকেশান যা সবস্ময় আপনার গতিবিধি হ্যাকারের কাছে পাঠাচ্ছে।আপনি চাইলে ফোনের সেটিংস অ্যাপ্লিকেশান এ গিয়ে সেখান থেকে দেখে নিতে পারেন আপনার কোন অ্যাপ্লিকেশান কতটুকু মোবাইল ডাটা ব্যবহার করছে।
আপনি প্রচুর পপ-আপ বাটন দেখতে পাবেম।যেমন আপনি লটারি বা আইফোন জিতেছেন আর শুদু একটি বাটনে ক্লিক করলেই আপনি সেটি পেয়ে যাবেন।এমন পপ-আপ থেকে দূরে থাকুন।কারণ এই পপ-আপ গুলো সাধারণত ম্যালওয়্যার পাঠিয়ে থাকে যার অর্থ হলো আপনার ফোন হ্যাক করা হয়েছে।
আপনার ফোন থেকে পাঠানো ই-মেইল কেন যেন স্প্যাম হয়ে যাচ্ছে।এমনটা হতে পারে হ্যাকারদের জন্য।তারা আপনার ই-মেইলে এক্সেস নিয়ে আপনার আপনার পাঠানো ই-মেইলের ক্যাটাগরি পালটে ফেলে এমন করে দিচ্ছে যার ফলে আপনার ই-মেইলগুলো স্প্যাম হিসেবে জমা হচ্ছে।
আপনি হয়ত ভাল নেটওয়ার্ক রেঞ্জে থেকেও কল করতে পারছেন না বা কল করলে ড্রপ হচ্ছে।এর কারণ হতে পারে আপনার ডিভাইসের কিছু টেকনিক্যাল সমস্যার কারণে।কিন্তু সবসময় এটাই কারণ হয় না।এটি হ্যাকাররা তাদের ম্যালওয়্যার দিয়ে করে থাকে।
আপনি যদি উপরের ১৫টির একটিও লক্ষণ আপনার ফোনে দেখতে পান তাহলে বুঝে নিন আপনার ফোন হ্যাক করা হয়েছে।আর যথাযথ পদক্ষেপ নিন।আপনি চাইলে সর্বশেষ ভার্সনের ভাল মানের অ্যন্টিভাইরাস দিয়ে আপনার ফোনকে পরিষ্কার করতে পারেন।

আরো দেখুন
মন্তব্য

Register

OR

Do you already have an account? Login

Login

OR

Don't you have an account yet? Register

Newsletter

Submit to our newsletter to receive exclusive stories delivered to you inbox!

keyboard_arrow_up